Home / চুলের যত্ন / গরমে চুলের যত্নে আমলকির দারুণ ৩টি হেয়ার মাস্ক

গরমে চুলের যত্নে আমলকির দারুণ ৩টি হেয়ার মাস্ক

আমলকি(Amalki) বা আমলা আমাদের সবারই পরিচিত একটা ফল। আমলকির সিজনে রাস্তায় বের হলেই ফেরিওয়ালার কাছে কিংবা ফলের দোকানে এই ফল চোখে পরবে। আমলার কদর কিন্তু কম নয়, চুলের জন্য দারুণ উপকারী এটি। এই ফলটির পুষ্টিগুণ এবং উপকারিতা বলে শেষ করা যাবে না! তবে যারা চুলের যত্নে(Hair care) এটি ইউজ করতে চান, ব্যস্ততার জন্য সবসময় হয়তো ফল ঘরে কিনে এনে প্রসেস করে তা ব্যবহার করার সময় হয়ে ওঠে না। তাই কোথায় পাবো আমলা গুঁড়ো ও কিভাবে সহজেই আমলা চুলের যত্নে ব্যবহার করা যায়, সেটা জেনে নেয়া যাক আজ। গরমে চুলের যত্নে আমলার দারুণ ৩টি হেয়ার মাস্ক(Hair mask) রেসিপি সম্পর্কে আমরা এখন জানবো!গরমে চুলের যত্নে

গরমে চুলের যত্নে আমলকির দারুণ ৩টি হেয়ার মাস্ক

গরমে চুলের যত্নে আমলা
তেল, শ্যাম্পু আরও অনেক হেয়ার কেয়ার(Hair care) প্রোডাক্টে আমলকির ব্যবহার প্রচুর দেখা যায়। চুলের যত্নটা প্রাকৃতিকভাবে করতে অনেকে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। চুল পরে যাচ্ছে, মাথায় খুশকি(Dandruff) হচ্ছে অথবা অল্প বয়সে চুল পেকে যাচ্ছে, এরকম প্রবলেম যাদের আছে, তাদের জন্য আমলকির প্যাক বানিয়ে তা হেয়ার কেয়ার রুটিনে সাপ্তাহিকভাবে ব্যবহার করা উচিৎ। গরমকালে চুলে বিভিন্ন ধরণের সমস্যা দেখা দেয়। আমলায় আছে ভিটামিন সি(Vitamin C), আয়রন এবং আরো অনেক উপকারী উপাদান, যা চুলের স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। সপ্তাহে ১/২ বার আমলা পাউডারের মাস্ক বানিয়ে ব্যবহার করলে চুলের গ্রোথ বাড়বে, ইচিনেস দূর করবে, সেই সাথে চুলে আরও বেনিফিট দিবে।

চুলের যত্নে আমলকির উপকারিতা
আমলাতে আছে ভিটামিন সি ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যেটা খুশকি(Dandruff) কমাতে সাহায্য করে থাকে
আয়রন চুলের গ্রোথ বাড়াতে হেল্প করে
প্রিম্যাচিউর হেয়ার গ্রেয়িং অর্থাৎ অকালে চুল(Hair) পেকে যাওয়া রোধ করে
এতে থাকা ফ্যাটি এসিড(Fatty acids) চুলকে করে তোলে শক্তিশালী এবং ঝলমলে

চুলের পরিচর্যায় আমলকি পাউডারের ৩টি কার্যকরী প্যাক
১. আমলার গুঁড়োর সাথে মেথি, ১টি ডিমের সাদা অংশ এবং কয়েক ফোঁটা ক্যাস্টর অয়েল(Castor oil) দিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার সমস্ত চুলে এই প্যাকটি ভালোভাবে লাগিয়ে ৩০-৪০ মিনিট রেখে দিন। তারপর আপনার পছন্দের একটি শ্যাম্পু(Shampoo) দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে এই প্যাকটি ১-২ দিন ব্যবহার করলে এটা চুলের গ্রোথ বাড়াতে হেল্প করবে।

২. আমলা পাউডারের সাথে টক দই এবং নারিকেল তেল(Coconut oil) মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকটি খুশকি দূর করার জন্য অনেক ভালো। তাই পেস্ট বানিয়ে সেটা সমস্ত চুলে লাগিয়ে ৩০-৪০ মিনিট রেখে দিবেন। তারপর একটি শ্যাম্পু(Shampoo) দিয়ে ভালোভাবে সেটা ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে এটা ১-২ বার ব্যবহার করলে বেশি উপকারিতা পাবেন। আমলার এই প্যাকটি চুলের খুশকি(Dandruff), ড্রাইনেস ও ফ্রিজিনেস দূর করতে সাহায্য করবে। কিছুদিন ব্যবহারের পর চুলের পার্থক্যটা আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন। আগের থেকে আপনার চুল(Hair) বেশ সফট ও ঝলমলে হয়ে উঠবে।

৩. আমলকি পাউডার অ্যালমন্ড অয়েল, টক দই(Sour yogurt) আর হেনা পাউডার সাথে মিক্স করে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন। এই মাস্ক চুলে ভালোভাবে লাগিয়ে রাখুন ৩০-৪০ মিনিট। এরপর মাইল্ড শ্যাম্পু ব্যবহার করে ভালোভাবে চুল(Hair) ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটির উপকার দ্রুত পেতে চাইলে সপ্তাহে ১-২ দিন লাগাতে হবে। এই মাস্কের উপাদানগুলো চুলের অকালে পেকে যাওয়ার সমস্যা দূর করবে এবং চুলকে রাখবে ময়েশ্চারাইজড ও শাইনি।

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

চুল

ঘরে তৈরি গ্রিন টি ও অ্যালোভেরার শ্যাম্পুতেই চুল হবে ঝলমলে

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *