Home / লাইফস্টাইল / মানসিক অবসাদ থেকে মুক্তির ৫টি উপায়

মানসিক অবসাদ থেকে মুক্তির ৫টি উপায়

জীবনের পথচলায় উত্থান-পতন থাকবেই। করোনাকালে অনেকেই ব্যবসায়িক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন, হারিয়েছেন কর্মসংস্থান। ব্যক্তি জীবনেও এর প্রভাব পড়েছে। এতে মানসিক (Mental) ভাবে ভেঙে পড়েছেন অনেকেই । কেউ কেউ নিজের যোগ্যতার ওপরেও প্রশ্ন তুলছেন। এমন সময় নিজেকে শান্ত রাখা খুব দরকার। জেনে নিন অবসাদ (Depression) থেকে মুক্তির ৫ উপায়।অবসাদ

মানসিক অবসাদ থেকে মুক্তির ৫টি উপায়

১। নিজেকে কখনো কারও সঙ্গে তুলনা করবেন না। আপনি আপনার মতো করে পারফেক্ট (Perfect)। কারও জন্য নিজেকে বদলানোর দরকার নেই। বরং নিজের প্রয়োজনে যতটুকু দরকার ঠিক ততটুকু বদলান। নিজের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করুন।

২। এমন মানুষদের সঙ্গে সময় কাটান কিংবা সম্পর্ক রাখুন যাদের সঙ্গ আপনার ক্ষতি হবে না। অর্থাৎ আপনি নিশ্চিন্তে এগিয়ে যেতে পারবেন। যারা আপনাকে মোটিভেট করে সামনের দিকে এগিয়ে দেবে। সব সময় আপনার পাশে থাকার চেষ্টা করবে।

৩। যখনই এমন কোন ক্ষতিকর চিন্তা আসবে, যা আপনার জীবনে খারাপ প্রভাব পড়তে পারে, তখন সেই চিন্তার পজেটিভ কিছু খুঁজে বের করুন। প্রয়োজনে সেই সমস্যার সঙ্গে লড়তে শিখুন। নিজেকে রিলাক্স (Relax) রাখা এ সময় খুব দরকার।

৪। নিজেকে ভুল বোঝানো, নেতিবাচক মনোভাব রাখা এবং সবসময় ভুলভাল কথা ভাবতে থাকা বন্ধ করুন। পজিটিভ চিন্তা (Positive thinking) করা দরকার, নয়তো উঠে দাঁড়ানো খুব মুশকিল।

৫। নিজের ওপর ভরসা রাখুন। নিজের মূল্যটুকু বুঝুন। সবরকম প্ল্যানে আগে থেকে নিজেকে প্রস্তুত রাখুন। চারপাশে থাকা হতাশাগ্রস্ত (Depressed) মানুষদের সঙ্গে সম্পর্ক কিছুদিনের জন্য বন্ধ করুন। দেখবেন ধীরে ধীরে জয় আপনারই হবে। আর কখনো জীবন পথে থেমে যাবেন না, দৃঢ় মনোবল নিয়ে এগিয়ে যান। সাফল্য আসবেই।

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কাছে কেমন লেগেছে এবং আপনার যদি কোনো প্রশ্ন অথবা মতামত থেকে থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। আর আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে শেয়ার করুন। সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

মনোযোগ

মনোযোগ নষ্ট হয় যেসব খাবারে

শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য খাবার গুরুত্বপূর্ণ। বেশ কয়েকটি গবেষণা আমাদের জানাচ্ছে, খাবার আমাদের মনকেও ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *