Home / বিউটি টিপস / যেসব খাবার ব্রণ থেকে দূরে রাখবে আপনাকে

যেসব খাবার ব্রণ থেকে দূরে রাখবে আপনাকে

ব্রণ(Acne) শুধু সৌন্দর্যই নষ্ট করে না, এটি যথেষ্ট অস্বস্তিকরও। হরমোনের তারতম্যের কারণে এটি বেশি হতে পারে। বিশেষ করে বয়ঃসন্ধিকালে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়। এছাড়াও আরও অনেক কারণে হতে পারে ব্রণ(Acne)। ত্বকে যেকোনো সমস্যা দেখা দিলে খাবারের ক্ষেত্রে সতর্ক হতে হবে। কারণ আমরা যা খাই, তার বড় প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকেও। কিছু খাবার ব্রণের সমস্যা বাড়িয়ে তোলে, কিছু খাবার ব্রণ(Acne) থেকে দূরে রাখে। আজ চলুন জেনে নেওয়া যাক কোন খাবারগুলো ব্রণ থেকে দূরে রাখে-ব্রণ

যেসব খাবার ব্রণ থেকে দূরে রাখবে আপনাকে

পানি
পানি আমাদের শরীরে শরীরে পুষ্টি এবং অক্সিজেন(Oxygen) বহন করে। সেইসঙ্গে অঙ্গগুলোকে পুষ্ট করে এবং ব্রণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য উপযুক্ত করে তোলে। পর্যাপ্ত পানি পান করলে তা শরীরের ভেতরে জমে থাকা দূষিত পদার্থ বের করে দেয়। যে কারণে ব্রণ(Acne) থাকে দূরে।

লেবুর রস
লেবুর রস অ্যাসিড বর্জ্য দূর করতে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে লিভারকে সাইট্রিক অ্যাসিড(Citric acid) দিয়ে পরিষ্কার করে। এটি রক্তের বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে এনজাইম তৈরি করে। ফলে ত্বক থাকে সতেজ ও উজ্জ্বল।

তরমুজ
ত্বকের যেকোনো ধরনের দাগ দূর করতে কাজ করে তরমুজ। এই ফলে থাকে ভিটামিন(Vitamin) এ, বি এবং সি। এসব উপাদান ত্বককে সতেজ, উজ্জ্বল এবং আর্দ্র রাখে। তরমুজ খেলে তা ব্রণ দূর করে এবং ব্রণের দাগও কমায়।

দই
দইয়ের আছে অ্যান্টিফাঙ্গাল এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ। ত্বক(Skin) পরিষ্কার করতে এবং আটকে থাকা ছিদ্রগুলোকে অবরুদ্ধ করতে কাজ করে এটি। ব্রণ থেকে দূরে থাকতে হলে প্রতিদিন এক বাটি দই খাওয়ার অভ্যাস করুন।

আপেল
উপকারী ফলের তালিকায় উপরের দিকেই আছে আপেলের নাম। আপেলে থাকে প্রচুর পেকটিন। এটি হলো ব্রণের শত্রু। তাই ব্রণমুক্ত থাকতে নিয়মিত আপেল(Apple) খান।

আখরোট
আখরোট খাওয়ার অনেকগুলো উপকারিতার মধ্যে একটি হলো এটি ত্বকের মসৃণতা ও কোমলতা বাড়াতে সাহায্য করে। আখরোটের তেলে থাকে লিনোলিক অ্যাসিড(Linoleic acid), যা ত্বকের গঠন বজায় রাখতে কাজ করে। এটি ত্বককে ভেতর থেকে আর্দ্র রাখে।

দুগ্ধজাত পণ্য
আমাদের সুস্থ ত্বকের জন্য অন্যতম প্রয়োজনীয় হলো সুষম খাবার। কম চর্বিযুক্ত দুগ্ধজাত পণ্যে থাকে ভিটামিন এ(Vitamin A)। এটি ত্বককে ভালো রাখে। দূরে রাখে ব্রণের সমস্যাও।

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Check Also

চোখের পাপড়ি

প্রাকৃতিকভাবে চোখের পাপড়ি ঘন করার উপায়

ঘন চোখের পাপড়ি এই সময়ে বহুল জনপ্রিয়। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সেটা করা হয় ফলস আইল্যাশ(Eyelashes) ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *