Home / ত্বকের যত্ন / ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নিতে ১০ টি প্রাকৃতিক উপাদান

ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নিতে ১০ টি প্রাকৃতিক উপাদান

ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নিতে ১০ টি প্রাকৃতিক উপাদান সম্পর্কে  জেনে নিন। ‘রূপচর্চায় আভিজাত্য’ কথাটি নিছকই কথার কথা নয়। দাগহীন সুন্দর হেলদি ত্বক (Skin) চায়না এমন নারী নেই। সেজন্য রূপচর্চায় স্থান পায় অনেক নামী দামি ব্রান্ডের প্রসাধনী। কিন্তু জানেন কি, আপনার হাতের নাগালেই আছে এমন ১০টি প্রাকৃতিক উপাদান যা দিয়ে খুব সহজেই পেতে পারেন সুন্দর গ্লোয়িং হেলদি ত্বক? আজকে আমরা জানব তেমনই ত্বকের যত্নে ১০ টি প্রাকৃতিক উপাদান এর কথা যা খুব সহজলভ্য আর গুণাগুণের ক্ষেত্রে অতুলনীয়। ত্বকের যত্নে ১০ টি প্রাকৃতিক উপাদান –ত্বকের যত্ন

ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নিতে ১০ টি প্রাকৃতিক উপাদান

১) মধু – ত্বকের যত্নে মধুর ব্যবহার কয়েক যুগ আগে থেকে হয়ে আসছে। মধু (Honey) খুবই শক্তিশালী একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা ময়েশ্চারাইজার (Moisturizer) হিসেবে খুবই ভালো কাজ করে। মধু ত্বকের সূক্ষ্মরেখা কমাতে সাহায্য করে। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে । ব্রনের দাগছোপ কমাতে সাহায্য করে।

২) অ্যালোভেরা – অ্যালোভেরা জেল বা ঘৃতকুমারীর ভেষজ গুণ ছাড়াও রূপচর্চাতেও এর জুড়ি মেলা ভার। অ্যালোভেরা জেল (Aloe vera gel) যে শুধুমাত্র ত্বকের ইচিনেস কমায় বা জ্বালাপোড়া কমায় তা না, ব্রনের জেদি দাগ দূর করতে খুবই সাহায্য করে। মুখের বলিরেখা কমায়। অ্যালোভেরা জেল ত্বকে লাগালে ত্বকের লালচে ভাব কমে। ত্বক (Skin) উজ্জ্বল করে।

৩) কস্তুরী হলুদ – হলুদের ব্যবহার তো সবাই জানি, কস্তুরী হলুদের গুণাগুণ কি জানা আছে ? সাধারণ হলুদের মত কস্তুরী হলুদ হলদে ছাপ ফেলে না ত্বকে, কিন্তু সাধারণ হলুদের থেকেও ১০ গুণ বেশি কার্যকরী কস্তুরী হলুদ। মুখের দাগ কমাতে খুবই সাহায্য করে এবং দ্রুতগতিতে।

৪) বেসন – রান্নাঘরে থাকা এই অতি সাধারণ উপাদান যে ত্বকের যত্নে কতটা কার্যকরী তা আপনি জানেন কি ? বেসন দিয়ে যেকোন ফেইসপ্যাক (Face pack) বানিয়ে ফেলা যায় সহজেই। বেসন মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। ব্রণের জেদি দাগ দূর করে। রোদে পোড়া ভাব দূর করে।

৫) টকদই – ত্বকের যত্নে আর একটি কার্যকরী প্রাকৃতিক উপাদান হচ্ছে টকদই। টক দই (sour yogurt) ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। রোদে পোড়াভাব কমায়। ত্বক নরম করতে সাহায্য করে। ত্বকের হারিয়ে যাওয়া জেল্লা ফিরিয়ে আনে।

৬) শসা – শসা ত্বককে সুদিং করতে সাহায্য করে। ত্বকের ইচিনেচ কমায়। চোখের এরিয়ায় ডার্ক সার্কেল কমাতে শসার জুড়ি নেই।

৭) চন্দন – চন্দন রূপচর্চায় আভিজাত্য এনে দেয়। সেই বহুকাল আগে থেকে চন্দনের ব্যবহার হয়ে আসছে । চন্দন ত্বকের দাগ কমায়, ত্বক উজ্জ্বল করে, ত্বক টানটান করতে সাহায্য করে।

৮) অলিভ অয়েল – শুনতে অবাক লাগলেও অলিভ অয়েল (Olive oil) খুবই উপকারী আমাদের ত্বকের জন্য। শুধু যে ত্বকে ময়েশ্চারাইজারের কাজ করে তা না, ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে, ত্বকে নারিশমেন্ট দেয়। হোয়াইটহেডসের সমস্যা সমাধানে অলিভ অয়েলের জুড়ি নেই। সেই সাথে ত্বকের পোর মিনিমাইজ করতে সাহায্য করে।

৯) টমেটো – সবজি হিসেবে ব্যবহৃত হলেও হয়ত অনেকেই জানেন না টমেটো ত্বকের যত্নেও সমান ভাবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। টমেটো ত্বকে জেল্লা এনে দেয়। ব্রণের দাগ (Acne scars) দূর করে দ্রুত। হোয়াইটহেডস কমায়। ত্বক উজ্জ্বল করে ও মসৃণ করে।

১০) মূলতানি মাটি – ত্বক থেকে ব্রণের দাগ দূর করতে মূলতানি মাটির প্যাক খুবই উপকারী। মূলতানি মাটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুবই ভালো। মূলতানি মাটি ত্বকের অতিরিক্ত তেল নিঃস্বরণ করে, ত্বক (Skin) টান টান করে। ত্বকে ইনস্ট্যান্ট গ্লো আনে।

তাহলে জেনে নিলেন তো ত্বকের যত্নে ১০ টি প্রাকৃতিক উপাদান এর কথা। এগুলি খুবই সহজলভ্য, সবার ঘরেই থাকে। তাইলে অল্প সময়ে অবসরেও নিজের ত্বকের যত্ন (Skin Care) নিতে পারবেন কোন ঝামেলা ছাড়াও। কিন্তু শুধু বাহ্যিক যত্নই সব নয়, সুস্থ সুন্দর ত্বকের জন্য প্রচুর পরিমানে জল পান করুন। দিনে অন্তত ৮ থেকে ১০ গ্লাস জল খান। সবুজ শাক সবজি (Vegetable) খান। রোজ একটু হাঁটুন, হালকা কিছু ব্যায়াম করুন।

আমাদের লেখা আপনার কাছে কেমন লেগেছে এবং আপনার যদি কোনো প্রশ্ন অথবা মতামত থেকে থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। আর আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে শেয়ার করুন। সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন।

Check Also

ত্বকের শুষ্কতা

শীতে ত্বকের শুষ্কতা দূর করার উপায়

শীতে ত্বকের শুষ্কতা দূর করার উপায়। এসে গেল শীত। এ ঋতু আমাদের অনেকেরই প্রিয়। কিন্তু ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *